ব্রেকিং:
মাওলানা ত্বহার হোয়াটসঅ্যাপ-ভাইভার অন; বন্ধ মোবাইল ফোন কে এই মাওলানা ত্বহার ২য় স্ত্রী সাবিকুন নাহার? আওয়ামীলীগের ধর্মীয় উন্নয়নকে ব্যাহত করতে ত্বহা ষড়যন্ত্র স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা ফেনীতে করোনার নমুনা সংগ্রহ করবে স্বাস্থ্যকর্মীরা ফেনীর বিভিন্নস্থানে মোবাইল কোটের অভিযান : ১৪ জনের দন্ড ফেনীতে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌছে দিয়েছে ছাত্রলীগ করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের ফেনীর ৭ সরকারি কলেজের একদিনের বেতন ত্রাণ তহবিলে ফেনী ধলিয়ায় গ্রাম পুলিশের বাড়িতে হামলা, আহত ২ মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? ফেনীতে বাড়তি দামে পণ্য বেচায় ৭ দোকানের জরিমানা দেশে করোনায় আক্রান্ত প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার, একদিনে মৃত্যু ৫ যুক্তরাষ্ট্রে করোনা জয় করলেন ১ লাখেরও বেশি মানুষ ফেনীতে গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ফেনী শহরে ইমাম-মুয়াজ্জিনদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান ফেনীতে ডাক্তারদের সুরক্ষা ও রোগীদের চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছে বিএমএ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো
  • বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৪ ১৪৩১

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

চিকিৎসাসেবার জন্য জনবলের চার গুণ পিপিই বিতরণ

ফেনীর হালচাল

প্রকাশিত: ৮ এপ্রিল ২০২০  

চিকিৎসাসেবায় ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রীর (পিপিই) ব্যবহার আগেও ছিল। জীবাণুর সংক্রমণ ও রাসায়নিক থেকে সুরক্ষার জন্য স্বাস্থ্য ও ল্যাবরেটরির কর্মীরা এটা ব্যবহার করেন। করোনার সংক্রমণের এই সময়ে বিশ্বজুড়ে এই সামগ্রীর ব্যবহারের বিষয়টি সামনে চলে এসেছে।

দেশে চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে সাড়ে চার লাখের বেশি পিপিই বিতরণ করেছে সরকার, যা সরকারি স্বাস্থ্য জনবলের চার গুণ বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, পিপিইর কোনো সংকট নেই। সোমবার নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, এ পর্যন্ত ৪ লাখ ৫৬ হাজার ১৭৪টি পিপিই বিতরণ করা হয়েছে। দেশের সব সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে পিপিই পাঠানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, পিপিই ব্যবহারের বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন আছে। কোথাও করোনায় আক্রান্ত রোগী থাকলে বা সন্দেহভাজন থাকলে পিপিই পরতে হবে। অন্য কাজে পিপিই ব্যবহার করা যাবে না। পিপিই ছাড়া বহির্বিভাগে রোগী দেখা যাবে না, এটা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন বলে না। যে জায়গায় পিপিই ব্যবহার যুক্তিপূর্ণ, সেখানেই ব্যবহার করতে হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্য অনুয়ায়ী, দেশের সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ মোট জনবল আছে ১ লাখ ১১ হাজার ৩০০ জন। এর মধ্যে চিকিৎসক ২৫ হাজার ৬১৫ জন, নার্স ৩৩ হাজার এবং অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারী ৫২ হাজার ৬৮৫ জন।

চিকিৎসক, নার্সসহ স্বাস্থ্য বিভাগের সব কর্মীকে সমান ভাগ করে দিলে প্রত্যেকের কমপক্ষে চারটি করে পিপিই পাওয়ার কথা।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি রশীদ-ই-মাহবুব বলেন, করোনাযুদ্ধের সম্মুখসারির যোদ্ধা হচ্ছেন চিকিৎসকসহ অন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁরা যদি সুরক্ষা নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন, তাহলে সেবা দেওয়া থেকে দূরে থাকার ঝুঁকি থাকবে। তবে সবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উচ্চ মানের পিপিই দরকার নেই। যাঁর দরকার, তাঁরা যেন এটা পান।

ফেনীর হালচাল
ফেনীর হালচাল