ব্রেকিং:
মাওলানা ত্বহার হোয়াটসঅ্যাপ-ভাইভার অন; বন্ধ মোবাইল ফোন কে এই মাওলানা ত্বহার ২য় স্ত্রী সাবিকুন নাহার? আওয়ামীলীগের ধর্মীয় উন্নয়নকে ব্যাহত করতে ত্বহা ষড়যন্ত্র স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা ফেনীতে করোনার নমুনা সংগ্রহ করবে স্বাস্থ্যকর্মীরা ফেনীর বিভিন্নস্থানে মোবাইল কোটের অভিযান : ১৪ জনের দন্ড ফেনীতে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌছে দিয়েছে ছাত্রলীগ করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের ফেনীর ৭ সরকারি কলেজের একদিনের বেতন ত্রাণ তহবিলে ফেনী ধলিয়ায় গ্রাম পুলিশের বাড়িতে হামলা, আহত ২ মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? ফেনীতে বাড়তি দামে পণ্য বেচায় ৭ দোকানের জরিমানা দেশে করোনায় আক্রান্ত প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার, একদিনে মৃত্যু ৫ যুক্তরাষ্ট্রে করোনা জয় করলেন ১ লাখেরও বেশি মানুষ ফেনীতে গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ফেনী শহরে ইমাম-মুয়াজ্জিনদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান ফেনীতে ডাক্তারদের সুরক্ষা ও রোগীদের চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছে বিএমএ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো
  • মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৮ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

অপহরনের একমাস পর গৃহবধূ উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১

ফেনীর হালচাল

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০২০  

ফেনীর সোনাগাজী থেকে এক গৃহবধূকে (২১) অপহরণের একমাস ছয়দিন পর মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার সাহেরখালী ইউনিয়নের ভোর বাজার এলাকার একটি বাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া করে অপহরণকারী আব্দুল্লাহ প্রতীক চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এর আগে ৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার রাতে নিজ বাড়ি থেকে অহরণের শিকার হয় ওই গৃহবধূ। পরও ওই গৃহবধূর স্বামী সোনাগাজী মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছিলেন। এ ঘটনায় গত সোমবার রাতে গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার সাহেরখালী ইউনিয়নের ভোরবাজার এলাকার শেখ বাহার উল্যাহর ছেলে মো. আবদুল্লাহ প্রতীক চৌধুরীসহ পাঁচজনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় অপহরণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, ওই গৃবধুর সঙ্গে মুঠোফোনে অজ্ঞাত নাম্বার থেকে আবদুল্লাহর পরিচয় হয়। এর পর দুজনের মধ্যে ফেসবুকেও যোগাযোগ চলতে থাকে। হঠাৎ করে গত কয়েক মাস ধরে আবদুল্লাহ ওই নারীকে উত্ত্যক্ত করে বিভিন্ন ধরণের প্রলোভন দেখিয়ে তাঁর সঙ্গে অনৈতিকভাবে অবৈক সম্পর্ক তৈরী করার প্রস্তাব দেয়। অন্যথায় তাঁকে বাড়ি থেকে অপহরণ করার হুমকি দেয়। বিষয়টি ওই গৃহবধূ তাঁর স্বামীকে জানায়। এ ব্যাপারে তিনি মিরসরাই গিয়ে আবদুল্লাহর পরিবারকে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পায়নি। উল্টো এতে আরও ক্ষিপ্ত ও বেপরোয়া হয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার রাতে গৃহবধু প্রকৃাতর ডাকে সাড়া দিয়ে ঘর থেকে বের হলে আবদুল্লাহসহ কয়েকজন সহযোগী একটি গাড়ীতে করে গৃহবধুকে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে অচেতন করে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সোনাগাজী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নওশের কোরেশী বলেন, উদ্ধারের পর মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী সদর হাসাপাতালে ওই গৃহবধূর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। বিকেলে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম তানিয়া ইসলামের আদালতে ওই গৃহবধুর ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। পরে আদালতের নিদের্শে গৃহবধূকে তাঁর স্বামীর জিম্মায় দেওয়া হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন আহমেদ অপহরণের একমাস পর এক গৃহবধূকে উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অপহরণকারীকে আদালতের মাধ্যমে ফেনীর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ফেনীর হালচাল
ফেনীর হালচাল